Former BCL leader Engineer Md. Sakil Khan is making Shaheed Minar in his area

0
276
-Ad-

‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙ্গানো একুশে ফেব্রুয়ারি, আমি কি ভুলিতে পারি’। পৃথিবীতে বাঙ্গালী ছাড়া আর কোনো জাতি নেই যাদের ভাষার জন্য আত্মত্যাগের ইতিহাস রয়েছে। তাই তো একুশে ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে স্বীকৃতি লাভ করেছে। আর তাই নিজ উপজেলার কয়েকটি গ্রামে শহীদ মিনার তৈরির উদ্যোগ নিয়েছেন তরুণ রাজনীতিক ইঞ্জিনিয়ার মো. সাকীল খান।

গতবছর ফেব্রুয়ারীতে মরিচা ইউনিয়নে একটি শহীদ মিনার নির্মাণ করেছিলেন । এরই ধারাবাহিকতায় এই বছর ইতিমধ্যে একটি শহীদ মিনার এর কাজ শুরু করেছেন। আগামী ২১ শে ফেব্রুয়ারি মহান শহীদ দিবসে ভাষা আন্দোলনে আত্মহুতি দেয়া শহীদদের স্মরণে এ মিনারে ফুল দেয়া যাবে বলে জানিয়েছেন সাকীল খান।

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ভাষা শহীদদের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য দেশের অনেক স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসায় শহীদ মিনার এখনো নির্মিত হয়নি। ছোটবেলার স্মৃতিতে মনে পড়ে স্কুলে নিজেরা অস্থায়ী শহীদ মিনার বানিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করতাম। আমার সেই বিষয়টি ছোটবেলায় দাগ কাটে, ভাষা শহীদদের প্রতি যথাযথ শ্রদ্ধা নিবেদনের বিষয়টিও উপেক্ষিত হয়ে পড়ে। ইচ্ছে ছিল নিজে কিছুটা সাবলম্বী হলে এই জায়গাটাতে কাজ করার চেষ্টা করবো। তারই ধারাবাহিকতায় চলতি ফেব্রুয়ারি মাসে প্রথম একটি শহীদ মিনার নির্মাণের কাজে হাত দেই।

সাকীল খান বলেন, কুষ্টিয়া জেলার দৌলতপুর উপজেলর অবহেলিত একটি ইউনিশন চিলমারী। এই ইউনিয়নে কোন শহীদ মিনার নেই। বর্তমানে চিলমারী আব্দুল জাব্বার, হাজী পান্ডব আলী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে শহীদ নির্মানের কাজ চলছে। আশা করছি এ বছর একুশে ফেব্রুয়ারিতে শহীদ মিনারটিতে ফুল দিতে পারবে এই ইউনিয়নের বিভিন্ন বিদ্যালয়সহ সামাজিক সংগঠনগুলো ।

তিনি আরও বলেন, আশা করছি শহীদ মিনারটি আগামী ২১ শে ফেব্রুয়ারির পূর্বেই উদ্বোধন করা হবে। আমি আপনাদের সকলের কাছে দোয়া ও সহযোগিতা কামনা করছি। আগামীতে আরো অনেকগুলো স্কুলে যেন শহীদ মিনার নির্মাণের কাজটি অব্যাহত রাখতে পারি। এই কাজের জন্য সমাজের বিত্তশালী ও প্রবাসীদের প্রতি আন্তরিকভাবে সহযোগিতা কামনা করছি।

গত বৃহঃস্পতিবার শহীদ মিনারের কাজের তদারকি দেখতে যান ওই স্কুলের প্রধান শিক্ষক কে. এম বোরহান উদ্দীন, সহকারী শিক্ষক মোঃ ইকবাল হোসেন , মোঃ রানা মাষ্টার, মোঃ আজিজ মাষ্টার, মোঃ মনিরুল হক, মোঃ আব্দুল হকসহ আরো অনেকে।

উল্লেখ্য, ইঞ্জিনিয়ার মো. সাকীল খান একজন তরুন রাজনীতিক ও সমাজসেবক । ডুয়েট শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সম্পাদক বর্তমানে বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন কেন্দ্রীয় কমিটির প্রচার সম্পাদক।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here